আলবার্ট আইনস্টাইন

মুক্ত বিশ্বকোষ উইকিপিডিয়াত্ত
আলবার্ট আইনস্টাইন
Albert Einstein Head.jpg
১৯৪৭ সালে আলবার্ট আইনস্টাইন
জরম 14 মারি 1879(1879-03-14)
উল্‌ম, Württemberg, জার্মানি
মরন 18 মারি 1955 (aged 76)
প্রিন্সটন, নিউ জার্সি, যুক্তরাষ্ট্র
থানার ফাম জার্মানি, ইতালি, সুইজারল্যান্ড, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র
জাতীয়তাহান জার্মান (১৮৭৯-৯৬, ১৯১৪-৩৩)
সুইজারল্যান্ডীয় (১৯০১-৫৫)
মার্কিন (১৯৪০-৫৫)
নাঙ ফিতসেতা সাধারণ আপেক্ষিকতা
বিশেষ আপেক্ষিকতা
ব্রাউনীয় গতি
আলোক তড়িৎ ক্রিয়া
ভর-শক্তি সমতুল্যতা
আইনস্টাইনের ক্ষেত্র সমীকরণ
একীভূত ক্ষেত্র তত্ত্ব
বসু-আইনস্টাইন পরিসংখ্যান
ইপিআর হেঁয়ালি
শিক্ষা পদার্থবিজ্ঞান
চাকুরী সুইজারল্যান্ডীয় পেটেন্ট অফিস (বার্ন)
জুরিখ বিশ্ববিদ্যালয়
চার্লস ইউনিভার্সিটি অফ প্রাগ
প্রুশীয় বিজ্ঞান একাডেমি
কাইজার ভিলহেল্‌ম ইনস্টিটিউট
লিডেন বিশ্ববিদ্যালয়
ইনস্টিটিউট ফর অ্যাডভান্সড স্টাডিস
লিচেৎ ইহুদি
পুরষ্কার [[Image:Nobel prize medal.svg পদার্থবিজ্ঞানে নোবেল পুরস্কার (১৯২১)
কপলি মেডেল (১৯২৫)
ম্যাক্স প্লাংক মেডেল (১৯২৯)|128px]]
স্বাক্ষর Albert Einstein signature.svg

আলবার্ট আইনস্টাইন (জার্মান ঠারে: Albert Einstein আল্‌বেয়াট্‌ আয়ন্‌শ্‌টায়ন্‌) (মার্চ ১৪, ১৮৭৯ - এপ্রিল ১৮, ১৯৫৫) জার্মানিত জরম নেসেগা নোবেল পুরস্কার বিজয়ী পদার্থবিজ্ঞানী আগো। গিরকে তার বিখ্যাত আপেক্ষিকতার তত্ত্ব বারো ভর-শক্তি সমতুল্যতার সূত্র লিংখাত করিয়া নাঙ পালসে। তা ১৯২১ সালে পদার্থবিজ্ঞানে নোবেল পুরস্কার পাসিল। পুরস্কার পানার কারণহান অইলতা, তাত্ত্বিক পদার্থবিজ্ঞানে গিরকর বিশেষ অবদান বারো বিশেষত আলোক-তড়িৎ ক্রিয়া সম্পর্কীত গবেষণার কা।[১]

আইনস্টাইন গিরক পদার্থবিজ্ঞানর নানান ক্ষেত্রত নিয়াম গবেষণা করিয়া গেসেগা বারো নুয়া উদ্ভাবন বারো লিংখাতে তার বপিয়া অবদান আছে। হাবিত্ত বিখ্যাত আপেক্ষিকতার বিশেষ তত্ত্ব বলবিজ্ঞান বারো তড়িচ্চৌম্বকত্বরে আজপেই করেসিল বারো আপেক্ষিকতার সাধারণ তত্ত্ব অসম গতির ক্ষেত্রত আপেক্ষিকতার তত্ত্বউহান প্রয়োগ করিয়া নুয়া মহাকর্ষ তত্ত্ব প্রতিষ্ঠা করেসিল। তার আর আর অবদানরমা আছেতা আপেক্ষিকতাভিত্তিক বিশ্বতত্ত্ব, কৈশিক ক্রিয়া, ক্রান্তিক উপলবৎ বর্ণময়তা, পরিসাংখ্যিক বলবিজ্ঞানর সমস্যাউতা বারো কোয়ান্টাম তত্ত্বৎ উতার প্রয়োগ, অণুর ব্রাউনীয় গতির ব্যাখ্যা আহান, আনবিক ক্রান্তিকর সম্ভ্যাব্যতা, এক-আনবিক গ্যাসর কোয়ান্টাম তত্ত্ব, নিম্ন বিকরণ ঘনত্বে আলোর তাপীয় ধর্ম (যেহান ফোটন তত্ত্বর ভিত্তিলো ইকরানি অসে), বিকিরণর তত্ত্ব আহান যেহানাত উদ্দীপিত নিঃসরণর বিষয় উহানউ আসিল, একীভূত ক্ষেত্র তত্ত্বর পয়লাকার ধারণা আহান বারো পদার্থবিজ্ঞানর জ্যামিতিকীকরণ।

আইনস্টাইনর গবেষণাকর্মউতা পেয়ারতা ৫০হার গজে বৈজ্ঞানিক গবেষণাপত্র বারো কতহান বিজ্ঞান-বহির্ভূত লেইরিকে।[২] ১৯৯৯ সালে টাইম সাময়িকীয়ে আইনস্টাইন গিরকরে "শতাব্দীর হাবিত্ত জিঙপা মানুগো" বুলিয়া ঘোষণা করেসিলা। এতাবাদে নাঙজাদা পদার্থবিজ্ঞানী হাবিরাংতো ভোট লয়া হারপাসি , হাবিয়ে তারে হাবি কালর হাবিত্ত ডাঙর পদার্থবিজ্ঞানীগো বুলিয়া য়াকরতারা।[৩] এবাকা যেগঊ দৈনন্দিন জীবনে বারো কথাবার্তাত বুদ্ধিলৌশিং বারো চৌখাত নিয়াম ইলে উগরে "আইনস্টাইন" বুলিয়া মাততারা, অর্থাৎ এবাকা "আইনস্টাইন" ওয়াহি এগো 'বুদ্ধিলৌশিং'র সমার্থকগো ইয়াপলগা।

জীবনী[পতিক]

হুরুকাংকাল বারো প্রাথমিক শিক্ষা[পতিক]

আইনস্টাইন ১৮৭৯ সালর ১৮ মার্চ উল্‌ম নাঙর শহরে জরম নেসিলগা। তার হুরুকাং কালহান কাটেইলো মিউনিখে। আইনস্টাইনর বাপক-মালক আসিলাতা ধর্মনিরপেক্ষ মধ্যবিত্ত ইহুদি। বাপক হেরমান আইনস্টাইন পাহিয়ার ফরিলো মমপাক হিরিয়া বারো বেসিয়া সংসার চালেইলো। পিসেদে মিউনিখে কারেন্তর কারখানা আগো হঙকরিয়া বাক্কা লাভ করেসিল। কোম্পানি উগোর নাংহান Elektrotechnische Fabrik J. Einstein & Cie । মালক পলিন কখ পরিবারর বিতরর হাবি কামদুম করলি। বনক আগো আসিলি, নাংহান মাজা। আইনস্টাইনর জরমর দিবছর থাংনাত তেইর জরম়। হুরকাকালে দুহান জিনিস দেহিয়া তা ঙাকইসিলতা - উতারমা আগো অইলতা পাঁচ বছর বয়সে পাসিল কম্পাস উগো, অদৃশ্য শক্তিআহানে কিসাদে কম্পাস এগোর কাঁটাগরে বুলারতা উহান খাল্করিয়া? সময় উহাত্ত আজীবন অদৃশ্য শক্তির প্রতি তার বিশেষ আকর্ষণ আহান আহিল।[৪] পিসে ১২ বছর বয়সে তা জ্যামিতির লেইরিক আহার লগে পরিচিত অইল। লেইরিক অহান তামকরিয়া কা অমাতিক হারৌ অসিল যে উহানরে না মরানি আগে পেয়া "পবিত্র হুরুকাং জ্যামিতির লেইরিকহান" বুলিয়া বলে সম্বোধন করিয়া গেসেগা।[৫] হুত্তুমে লেইরিক উহান আসিলতা [ইউক্লিড|ইউক্লিডর]] এলিমেন্ট্‌স

তার পয়লা স্কুলগো ক্যাথলিক এলিমেন্টারি স্কুল। অমাটিক না গুজুরলেউ তা এলিমেন্টারি স্কুলর নিয়াম মেধাবী ছাত আগো আসিল।[৬]

১৮৯৩ সালে আলবার্ট আইনস্টাইন (১৪ বছর বয়স)। পরিবারহানলো ইতালিত যানার আগে তুলেসি ছবিগো।

দেশত্যাগ[পতিক]

আইনস্টাইনোর বয়স যেপাগা ১৫ ঐ সময় তার বাপক যেপাগাও ক্ষতির শিকার অয়া পরিসিল । এ সময় অহাত কোম্পানি মিউনিখ শহরর দাঙর অংশআহান বিদ্যুতায়িত করানিরকা লাভজনক চুক্তি অহান করানীত ব্যর্থ অইয়া পরিসিল । অগত্যা হেরমান সপরিবারে ইতালির মিলানর থানা পরিকল্পনা আহান্ন থায়লাগ। অহাত তার গোষ্ঠী আগোর ঘরে আকতায়া কাম আরম্ভ করলা। মিলানর পরে তাঙি কয়েক মাহা পাভিয়া-ত থায়িসি। অরে সময়েই আইনস্টাইনর জীবনর পইলাকার বৈজ্ঞানিক গবেষণাপত্রহান লেঙ্করেসিল যেহার নাঙহান "চৌম্বক ক্ষেত্রে ইথারর অবস্থা সংক্রান্ত অনুসন্ধান" (The Investigation of the State of Aether in Magnetic Fields)।[৭] বাপকে তারে মিউনিখর বোর্ডিং হাউজ আগত থয়া গিয়াছিলগা লেরিক তামকরানি নমকরানিরকা । আখকোলাগ ইয়া তার জীবন দুঃসহ ইয়া উঠেছিল ।অহানে স্কুলের দিকআকহার লেরিক তামকরানিয়ে তার উপর ১৬ বছর বয়স হয়ে যাওয়ায় সামরিক দায়িত্ব পালনের চাপ তারে হিনকরিয়া তোলেছিল। পরিবারেত্ত বিচ্ছিন্ন অনার মাত্র ৬ মাস পরেই তা মিউনিখ বেলয়া পাভিয়াতে তার বাবা-মার কাদাহাত গেলগা । হঠাৎ আকদিন দোয়ারহাত আলবার্টর উপস্থিতি দেহিয়া তাঙি বিস্মিত ইয়া পরেছিলা । তার উপর স্কুলর চাপর বিষয়হান ইমাবাবাই হারপানি পারেছিলা । ইতালিত তারে কোন স্কুল আগোতই ভর্তি করাননি নাইসিল । অহানয়া মুক্ত জীবন কাটিয়াছিল আইনস্টাইনে । তার যোগ্যতাহান খুবই আশাব্যঞ্জক ইয়া পারেসিল বলুয়া আকগরতাও মনে নাকরিসি । ডাক্তারর চিকিৎসাপত্রহাত অজুহাত দেখাদিয়া তা স্কুল লেত্ত গিয়াছিলগা ।

আইনস্টাইন

জুরিখের দিনগুলি[পতিক]

এরে সময় এহানাৎ আইনস্টাইনর জীবনহাত সুযোগ আহান আহেছিল । তা সুইজারল্যান্ডর জুরিখে অবস্থিত Eidgenössische Polytechnische Schule (সুইজ ফেডারেল পলিটেকনিক স্কুল, ১৯০৯ সালে অহানরে দাঙর করিয়া চেপশিল বিশ্ববিদ্যালয় আগোর মর্যাদা দেনা ইসিল বারো ১৯১১ সালে নাঙহান পরিবর্তন করিয়া Eidgenössische Technische Hochschule বারো সুইস ফেডারেল ইনস্টিটিউট অফ টেকনোলজি বা ইটিএইচ জুরিখ) নামক প্রতিষ্ঠানহাত ভর্তির সুযোগ আহান পাছিল। অহাত হুদ্দা ভর্তি পরীক্ষাহাত কৃতকার্য অনা পারলেই তারে ভর্তির সুযোগ দেনার কথা আছিল । যদিও তারতা হাই স্কুল বারো সমমানর কোন ডিগ্রি নেইসিল । ভর্তি পরীক্ষায় অংশ নিলগা । ফলাফল দিলে দেখালা যে তা , পদার্থবিজ্ঞান ও গণিতে হবা করিছে, কিন্তু অকৃতকার্য ইছে ফরাসি ভাষা, রসায়ন বারো জীববিজ্ঞানে। গণিতে অনেক হবা করানিরকা তারে পলিটেকনিকে ভর্তি করিয়া নিয়াছিগা শর্তহান আকহানন্নো, শর্ত হান অইলত।ই সাধারণ স্কুলের পর্যায়অতা অতিক্রম করতে হবা রেজাল্ট করিয়া আহানিওই লাগতই । যেসাদে কথা অসাদে কাম করিয়া দেহাদিল ।অহাত্ত পিসে তা সুইজারল্যান্ডর আরাইতে জস্ট উইন্টেলার কর্তৃক পরিচালিত বিশেষ আকসারর স্কুল আগত ভর্তি ইল বারো ১৮৯৬ সালে অগত্তই স্নাতক ডিগ্রী অর্জন করেছিল । অহাত্ত তা ম্যাক্সওয়েলর তাড়িতচৌম্বক তত্ত্ব নিয়ে তামকরেছিলেন। অই সময়ে জার্মানির সাময়িক দ্বায়িত্ব পালন অহান এড়ানোরকা তা আনুষ্ঠানিকভাবে জার্মান নাগরিকত্ব ত্যাগ করেছিল , অরে ব্যাপারে তার বাপকর স্মতি আছিল। অহার পর প্রায় ৫ বছর তা কোন দেশেরই নাগরিকগো নায়া আছিল । ১৯০১ সালের ২১ ফেব্রুয়ারি সুইজার‌ল্যান্ডর নাগরিকত্ব লাভ করেছিল যেহান তা পিছেদেও ত্যাগ না করেছিল ।[৮]

উইন্টেলার পরিবারর লগে আইনস্টাইন বারো তার পরিবারের বিশেষ সক্ষ্যতা আহান গড়িয়া উঠেছিল। উইন্টেলারর জিলক Sofia Marie-Jeanne Amanda Winteler (ডাকনাম মেরি) আছিলিতাই তার পইলাকার হাদাপানির পাত্রী গো । কিন্তু, ইটিএইচ জুরিখে অংকনো অধ্যয়নর সময় মেরি শিক্ষকতারকা ওল্‌সবার্গে গিয়া বল্লিগা । তার হুরকাঙ বনক মাজা উইন্টেলারের পিতক পল অগোরে লোহঙ করেছিল[৯] বারো তার ঘনিষ্ঠ বন্ধু মিশেল বেসো তানোর দাঙর জিলক আনারে লোহঙ করেছিল। জুরিখর খেন্তামঅতা তারতা খুব নুঙেই অয়া কাটিছিল। অহাত তারতা বহু বন্ধুর দেখা পাছিল যেতার লগে তারতা হবা সময় আহান ফোয়াছিল । যেমন গণিতজ্ঞ মার্সেল গ্রসম্যান বারো বেসো যেতার লগে তা নিয়ামপারা স্থান-কাল নিয়া হারাদিন আলোচনা করেছিল। অহাতই তার লগে মিলেভা মেরিকের দেখা ইসিল । মিলেভা সার্বিয়াত্ত আহিসে পদার্থবিজ্ঞানর ফেলো ছাত্রীগো আছিলি। প্রকৃতপক্ষে মিলেভা আছিলিতাই বিশ্ববিদ্যালয়ের গণিত বিভাগর আকখোলাগো ছাত্রীগো। তানোর বন্ধুত্ব হাদাহাদির ভাড়ে গিয়াছিল বারো ঐ মিলেভারেই পরবর্তীতে লোহঙ করেছিল । তানোর ঘরে তিন সন্তানর জন্ম ইসিল । আইনস্টাইনর মানক অবশ্য চেহারা বেশী হবা নাছিলি , অ-ইহুদিগো বারো বয়স্ক অনার কারণে মিলেভারে প্রথমে পছন নাকরেছিলি ।[১০] তাদের কন্যা Lieserl Einstein-এর জন্ম হয় ১৯০২ সালে তাদের বিয়ের আগে।[১১] অল্প বয়সেই তা মরোবরছিলগা । কারণ সম্বন্ধে হবা করিয়া হান নাপাসি । আইনস্টাইন ১৯০০ সালে ইটিএইচ এত্ত পদার্থবিজ্ঞান বিষয়লো নানানভাবে স্নাতক ডিগ্রি নিয়ে নুকুলিছিল । এ সময়হানাৎ মিশেল বেসো তারে আর্নস্ট মাখ-এর লেখার লগে পরিচয় করিয়া দিয়াছিল। অহার পর পরই তার গবেষণাপত্রহান Annalen der Physik প্রকাশিত ইসিল যেহার বিষয় আছিলতা নলগোর বুকগদে দিয়া কৈশিক বল


পেটেন্ট অফিস[পতিক]

স্নাতক পানার পরে আইনস্টাইন শিক্ষকতার কোন চাকরি আহানও বিসারিয়া নাপাসে । প্রায় ২ বছর পরে চাকরির কাজে ঘোরাঘুরি করেছিল। ২ বছর পরে তার প্রাক্তন সহপাঠী আগোর বাপকে বার্নের এক দপ্তরে চাকরির ব্যবস্থা করে দিয়াছিল । অহান আছিলতা ফেডারেল অফিস ফর ইন্টেলেকচুয়াল প্রোপার্টি নামক পেটেন্ট অফিস আগোত । তার চাকরিহান ইছিলতাই সহকারী পরীক্ষকগো।[১২] তার দায়িত্বহান আছিলতা , আহের পেটেন্টঅতারে তাড়িতচৌম্বক যন্ত্রেরকা পরীক্ষা করানি। ১৯০৩ সালে সুইস পেটেন্ট অফিসে তার এরে চাকরি স্থায়ী ইয়। বলগা । অবশ্য যন্ত্রর কলা-কৌশল বিষয় পূর্ণ দক্ষতা অর্জন না করানি পর্যন্ত তার পদোন্নতি হবেনা মাতিয়াও হারপুয়া দেনা ইয়াছিল।[১৩]

আইনস্টাইনর কলেজর লগর বন্ধু মিশেল বেসোও এই পেটেন্ট অফিসে কাম করেছিল । তাঙি দুগোই অন্য বন্ধুঅতার লগে বার্নের জায়াগা আহাত নিয়মিত মিলিত ইসিলা । তানোর মিলিত অনার উদ্দেশ্যহান আছিলতাই বিজ্ঞান বারো দর্শন বিষয়ে আলোচনা করানি , এসাদে ক্লাবের জন্ম ইল । আহানির শিলনো তাঙি এই ক্লাবের নাঙহান দিয়েছিলানতাই "দ্য অলিম্পিয়া একাডেমি"। ঔহাত তানুর মধ্যে হাবিত্ত বপকরে যেতায় তামকরিসি তাঙি ইলাতায় , অঁরি পয়েনকেয়ার, আর্নস্ট মাখ এবং ডেভিড হিউম। এতায় মূলত আইনস্টাইনের বৈজ্ঞানিক বারো দার্শনিক চিন্তাধারায় হাবিত্ত বপকরে প্রভাব বেলাছিল।[১৪]

সাধারণ বিশেষজ্ঞ বারো ইতিহাসবিদঅতাই মনে করতারাতা পেটেন্ট অফিসর দিনঅতা আইনস্টাইনের মেধাবিকাশ ইয়াছিল । কারণ পদার্থবিজ্ঞান বিষয়ে তার আগ্রহর লগে নিয়াসেগা চাকরির কোন সংযোগ নেইসিল বারো ‌ঔ সময়হানাত তা আরাকও আগুয়িয়া যানা পারত।[১৫] কিন্তু বিজ্ঞান ইতিহাসবিদ পিটার গ্যালিসন এ ব্যাপারনো দ্বিমত পোষণ করেছিন। তার মতহান অইলতাই , ঔহাত থানা অবস্থান কাজকর্মের লগে আইনস্টাইনের পরবর্তী জীবনর আগ্রহর বিষয়হানি যোগসূত্র ইয়াসিল । যেমন, পেটেন্ট অফিসে কর্মরত থাকাকালীন সময়ে তা বৈদ্যুতিক সংকেতর সঞ্চালন বারো সময়র বৈদ্যুতিক-যান্ত্রিক সামঞ্জস্য বিধান বিষয়নো খানি গবেষণা করেছিল। ঐ সময়হানাৎ সঙ্কালিক সময় বিষয়ক চিন্তাধারানো দুহান দাঙর কৌশলগত সমস্যা আছিল। ঐ সমস্যাঅতা নিয়া চিন্তা করতেগা গিয়া সে সময়হানাৎ তা আলোর প্রকৃতি বারো স্থান ও কালর মধ্যে মৌলিক যোগসূত্র হঙ্করানি পারেছিল।[১৩][১৪] আইনস্টাইন ১৯০৩ সালর ৬ জানুয়ারি মিলেভা মেরিকঅরে লুহঙ করেছিল। তানোর সম্পর্কহান হুদ্দা আবেগকেন্দ্রিক নাইছিল, সম্পর্কঅহাত নিয়ামপারা বুদ্ধিবৃত্তিক অংশীদারিত্বর উপাদান মিশিয়া আছিল। অতায়া পরবর্তীতে তা মিলেভা সম্বন্ধে মাতেছিলতা , "মিলেভা এমন সৃষ্টি আহান যে মর সমান বারো মর মতই শক্তিশালী বারো স্বাধীন"। এরিক তার গবেষণাকর্মে কি ভূমিকা থয়াছিল অহান নিয়া বিতর্ক আছে। অবশ্য অধিকাংশ ইতিহাসবিদই মনে করতারাতাই আইনস্টাইনর গবেষণাকর্ম মেরিকের বড় কোন ভূমিকা নেইসিল ।[১৬] ১৯০৪ সালের ১৪ মে আলবার্ট বারো মিলেভার পইলাকার পুতকগো হ্যান্স আলবার্ট আইনস্টাইনর জন্ম অইছিল । তানোর পীছকার পুতকগো এদুয়ার্দ আইনস্টাইনর জন্ম অইতাই ১৯১০ সালর ২৮ জুলাই

অ্যানাস মিরাবিলিস গবেষণাপত্র[পতিক]

মডেল:মূল

১৯০৫ সালে পেটেন্ট অফিসে কর্মরত থানা অবস্থায় আইনস্টাইন Annalen der Physik নামক জার্মান বিজ্ঞান সাময়িকীতে চারিহান গবেষণাপত্র প্রকাশ করেছিল । অহাতও তা পেটেন্ট অফিসে কর্মরত আছিল। জার্মানির নেতৃস্থানীয় বিজ্ঞান সাময়িকীত প্রকাশিত ওরে গবেষণাপত্রহানি ইতিহাসর অ্যানাস মিরাবিলিস গবেষণাপত্রহানি নামে স্মরণীয় করিয়া থনা ইয়াছিল । গবেষণাপত্র চারিহার বিষয়হানি অইতাই:

চারটি গবেষণাপত্র বিজ্ঞানের ইতিহাসে বিস্ময়কর ঘটনা হিসেবে স্বীকৃত এবং এগুলোর কারণেই ১৯০৫ সালকে আইনস্টাইনের জীবনের "চমৎকার বছর" হিসেবে উল্লেখ করা হয়। অবশ্য সে সময় তার গবেষণাপত্রের অনেকগুলো তত্ত্বই প্রমাণিত হয়নি এবং অনেক বিজ্ঞানীর কয়েকটি আবষ্কারকে ভ্রান্ত বলে উড়িয়ে দেন। যেমন আলোর কোয়ান্টা বিষয়ে তার মতবাদ অনেক বছর ধরে বিতর্কিত ছিল।[১৭] ২৬ বছর বয়সে আইনস্টাইন জুরিখ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পিএইচডি ডিগ্রি অর্জন করেন। তার উপদেষ্টা ছিলেন পরীক্ষণমূলক পদার্থবিজ্ঞানের অধ্যাপক আলফ্রেড ক্লাইনার। তার পিএইডি অভিসন্দর্ভের নাম ছিল, "আ নিউ ডিটারমিনেশন অফ মলিক্যুলার ডাইমেনশন্‌স" তথা আনবিক মাত্রা বিষয়ে একটি নতুন নিরুপণ।মডেল:Harv

আইনস্টাইনর কতহান বিখ্যাত উক্তি[পতিক]

  • ১৯৫২ সালে আইনস্টাইনরে ইস্রায়েল রাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট পদরকা আহ্বান জানানো ইসিল , অহাত তা মাতেসিলতা , {{মি মনে করুরি রাজনীতির চেয়ে সমীকরণ হাবিত্ত গুরুত্বপূর্ণ । কারণ হান অইলতাই , রাজনীতি ইকরানি অরতা বর্তমানর খসড়া চেহাত বারো সমীকরণ ইকানি অরতা মহাকালর অজর গ্রন্থানিত।}}

তথ্যসূত্র[পতিক]

  1. Nobel Foundation. The Nobel Prize in Physics 1921. পাসিলাঙতা 2007-03-06.
  2. These include: About Zionism: Speeches and Lectures by Professor Albert Einstein (1930), "Why War?" (1933, co-authored by Sigmund Freud), The World As I See It (1934), Out of My Later Years (1950), and a book on science for the general reader, The Evolution of Physics (1938, co-authored by Leopold Infeld).
  3. Matin Durrani. Physics: past, present, future. Physics World, 1999-12-06. পাসিলাঙতা 2007-11-27.
  4. Schilpp (Ed.), P. A. (1979). Albert Einstein - Autobiographical Notes. Open Court, 8–9. 
  5. উদ্ধৃতি ত্রুটি: অবৈধ <ref> ট্যাগ; HarvChemAE নামের ref গুলির জন্য কোন টেক্সট প্রদান করা হয়নি
  6. মডেল:Citation
  7. Mehra, Jagdish. Albert Einstein's first paper. পাসিলাঙতা 2007-03-04.
  8. Einstein's nationalities at einstein-website.de. পাসিলাঙতা 4 October, 2006।
  9. Ibid.
  10. মডেল:Citation This web site, companion to the controversial Geraldine Hilton documentary of the same name, is currently under review for historical accuracy. (See মডেল:Citation.)
  11. This conclusion is from Einstein's correspondence with Marić. Lieserl is first mentioned in a letter from Einstein to Marić (who was abroad at the time of Lieserl's birth) dated February 4, 1902 (Collected papers Vol. 1, document 134).
  12. Now the Swiss Federal Institute of Intellectual Property. পাসিলাঙতা 16 October, 2006।. See also their FAQ about Einstein and the Institute.
  13. ১৩.০ ১৩.১ Peter Galison, "Einstein's Clocks: The Question of Time" Critical Inquiry 26, no. 2 (Winter 2000): 355–389.
  14. ১৪.০ ১৪.১ Galison, Peter (2003). Einstein's Clocks, Poincaré's Maps: Empires of Time. New York: W.W. Norton. ISBN 0393020010. 
  15. E.g. মডেল:Citation
  16. Alberto A Martínez. Arguing about Einstein's wife (April 2004) - Physics World - PhysicsWeb (See above). পাসিলাঙতা 21 November, 2005।
  17. On the reception of relativity theory around the world, and the different controversies it encountered, see the articles in Thomas F. Glick, ed., The Comparative Reception of Relativity (Kluwer Academic Publishers, 1987), ISBN 90-277-2498-9.

ওয়েব মিলাপ[পতিক]